ভারী বর্ষণে তাজিকিস্তানে ভূমিধস ও পাথর পড়ে নিহত ১৩

মধ্য এশিয়ার দেশ তাজিকিস্তানে ভারী বর্ষণে কমপক্ষে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। মূলত ব্যাপক বৃষ্টিপাতের মধ্যে ভূমিধস ও পাথর পতিত হওয়াসহ বৃষ্টি সম্পর্কিত নানা ঘটনায় প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে। এছাড়া দেশটিতে আরও ভূমিধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বার্তাসংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে সোমবার (২৮ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম এআরওয়াই নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাজিকিস্তানের মধ্যাঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের পর অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন বলে সোমবার মধ্য এশিয়ার এই দেশটির প্রেসিডেন্টের দপ্তর জানিয়েছে।

দেশটির জরুরি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র এএফপিকে বলেছেন, রাজধানী দুশানবের ঠিক দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলে এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। রোববার এই অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির কারণে প্রায় এক ডজন জেলায় ‘কাদা ধস, পাথর পতিত হওয়াসহ ভূমিধস’ হয়েছে।

তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রহমানের কার্যালয় সংক্ষিপ্ত এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ভারী বৃষ্টির কারণে গতকাল প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘটেছে এবং ১৩ জন মারা গেছে। যার মধ্যে ১১ জন ভাহদাত এবং দুইজন রুদাকি জেলায় মারা গেছেন।’

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, দেশে আরও ভূমিধসের ‘উচ্চ ঝুঁকি রয়ে গেছে’।

সংবাদমাধ্যম বলছে, মধ্য এশিয়ার সাবেক সোভিয়েত দেশগুলোর মধ্যে তাজিকিস্তান হচ্ছে সবচেয়ে দরিদ্র। এছড়া দেশটি প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ঝুঁকিতেও রয়েছে।