ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা, শান্ত থাকার পরামর্শ চীনের

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসবাদী হামলায় সিআরপিএফ সেনাদের মৃত্যুর পর উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে। উভয় দেশ হামলা, পাল্টা হামলার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে একে অপরকে। এর মধ্যেই ভারত ও পাকিস্তানকে সংযম দেখাতে বলল চীন। যত দ্রুত সম্ভব আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে দু’পক্ষকে নিজেদের যাবতীয় বিরোধ মিটিয়ে নিতেও বলেছে চীন।

আগেই এই হামলার দায় নিয়েছে জইশ-ই-মোহম্মদ গোষ্ঠী যারা পাকিস্তানের মদতপুষ্ট। এই ইস্যুতে গত শুক্রবার পাকিস্তানকে দেওয়া সবচেয়ে পছন্দের দেশের মর্যাদা (মোস্ট ফেভারড নেশন) প্রত্যাহার করে ভারত, পাশাপাশি পাকিস্তান থেকে ভারতে আসা পণ্যের ওপর ২০০ শতাংশ আমদানি শুল্কও বৃদ্ধি করে।

এই প্রেক্ষাপটেই চীনা বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র গেং শ্যুয়াং বেজিংয়ে বলেন, পাকিস্তান ও ভারত, উভয়েই দক্ষিণ এশিয়ার গুরুত্বপূর্ণ দেশ। এই অঞ্চলের শান্তি, স্থিতিশীলতার স্বার্থেই দুটি দেশের মধ্যে স্থিতিশীল দ্বিপাক্ষিক বোঝাপড়া থাকা জরুরি। দক্ষিণ এশিয়ায় সামগ্রিক ভাবে স্থিতিশীলতা বজায় রয়েছে। যাকে পুষ্ট করা, বহাল রাখা উচিত সব পক্ষের। পাকিস্তান ও ভারত সংযম দেখাবে, আলোচনায় সামিল হবে, যত শীঘ্র সম্ভব প্রাসঙ্গিক সমস্যাগুলির শান্তিপূর্ণ মীমাংসা করে ফেলতে পারবে বলে চিন আশা করছে।