পাটকল শ্রমিকদের ধর্মঘট অব্যাহত

বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো মহাসড়ক ও রেলপথ অবরোধে নেমেছেন রাষ্ট্রায়ত্ত ২৬টি পাটকলের শ্রমিকরা। তাদের অবরোধের ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, নরসিংদীসহ বিভিন্ন জেলার মানুষ। তবে শ্রমিকদের দাবি দাওয়ার বিষয়ে নির্বিকার বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশন (বিজেএমসি)। সংস্থাটির পক্ষ থেকে আসেনি কোনো আশ্বাসও।

আগের দুই দিনের মতো বৃহস্পতিবার ধর্মঘটে নামে পাটকল শ্রমিকরা। এসময় বিক্ষোভ মিছিল, টায়ারে আগুন দেওয়াসহ সমাবেশ করেন তারা। শ্রমিক নেতারা বলছেন, তারা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করেছেন। আর দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন চলবে। শ্রমিকরা বলছেন, বিজেএমসির আওতাধীন জুট মিলগুলোতে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে শ্রমিকদের মজুরি বকেয়া আছে। এছাড়াও ২০১৫ সালে ঘোষিত মজুরি কমিশন এখনও চালু করা হয়নি।

বিজেএমসি অধীনে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা জোনে মোট ২৬টি পাটকল রয়েছে। তবে শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো আশ্বাস দিতে পারেনি বিজেএমসি। সংস্থাটির তরফে এখন পর্যন্ত কোনো বক্তব্যও আসেনি। রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদের আহবায়ক সোহরাব হোসেন জানান, শ্রমিক ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে। রবিবার ঢাকায় বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকলের শ্রমিক নেতারা বৈঠক করবেন। সেই বৈঠক থেকে লাগাতার এবং আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।