তুরস্ককে ঠেকাতে সামরিক সরঞ্জাম কিনছে গ্রিস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভূমধ্যসাগরের প্রাকৃতিক সম্পদের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তুরস্কের সঙ্গে অব্যাহত উত্তেজনার মধ্যে বিপুল সামরিক সরঞ্জাম কেনাসহ সামরিক শক্তি বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিতসোটাকিস।

তুরস্ককে মোকাবেলা করতে ফ্রান্স থেকে ১৮টি রাফালে যুদ্ধবিমান, চারটি মাল্টিপারপাস ফ্রিগেট এবং চারটি নেভি হেলিকপ্টার কেনা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। খবর আলজাজিরার।

আরও সেনা মোতায়েনের ঘোষণাও দিয়েছেন গ্রিসের সরকার প্রধান। শনিবার গ্রিসের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর থেসালোনকিতে এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী বলেন, আরও ১৫ হাজার সেনা নিয়োগ দেয়া হবে। ট্যাংক-বিধ্বংসী নতুন অস্ত্র, নেভি টর্পেডো এবং বিমান বাহিনীর জন্য ক্ষেপণাস্ত্র কেনা হবে। নতুন চারটি ফ্রিগেট আপডেট করা হবে। এতে কয়েক হাজার কর্মসংস্থানও হবে।

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, রোববার সংবাদ সম্মেলন করে এসব অস্ত্র ক্রয়ের খরচ এবং কোন কোন দেশ থেকে সেগুলো কেনা হবে তা বিস্তারিত তুলে ধরা হবে গ্রিস সরকারের পক্ষ থেকে।

ভূমধ্যসাগরের তুর্কি এবং তুর্কি সাইপ্রাস অংশে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে তুরস্ক জাহাজ পাঠালে গ্রিসের সঙ্গে উত্তেজনা তৈরি হয়।

বিচ্ছিন্ন দ্বীপের মালিকানার ভিত্তিতে ওই এলাকাকে নিজেদের দাবি করে গ্রিস। অন্যদিকে মূল ভূখণ্ডকে ভিত্তি ধরে ওই এলাকায় নিজেদের মালিকানা দাবি করে আসছে তুরস্ক।

এ নিয়ে বিতর্কিত এলাকায় তুরস্ক ও গ্রিস পাল্টাপাল্টি নৌ-মহড়ার আয়োজন করে। দু’দেশের এই উত্তেজনার মধ্যে গ্রিসের সমর্থনে ওই এলাকায় যুদ্ধজাহাজ ও যুদ্ধবিমান পাঠায় ফ্রান্স।